ঘটনাসূত্রে জানা গেছে, আলমডাঙ্গা উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের সাজ্জাদ আলীর দুই সন্তানের জননী স্ত্রী শখের বানুকে (৩০) রেখে গত ১১ মাস আগে বিদেশে পাড়ি জমিয়েছে। এই সুযোগে স্ত্রী শখের বানু প্রতিবেশি নাতি সম্পর্কের যুবক মানিকের (২৭) সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে।চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গায় প্রেমিক নাতির বিয়ের খবরে রাতে ঘরে ডেকে লি’ঙ্গ কে’টে দিল দাদি। ঘটনাটি ঘটেছে জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামে। রাতেই গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় নাতি মানিককে (২৭) আলমডাঙ্গা শহরের শেফা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। কর্তিত লি’ঙ্গ ৮টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।




জানা যায়, মানিক পাইকপাড়া গ্রামের আলমঙ্গীর আলীর ছেলে। দীর্ঘদিন ধরে নাতি মানিক ও দাদি শখের বানুর শারীরিক সম্পর্ক করে বলেও জানা যায়। এরই মধ্যে বিপত্তি। অবিবাহিত প্রেমিক নাতি মানিকের বিয়ে পাকাপোক্ত হয়। সে বিয়েতে মত ছিল প্রেমিক নাতির। এতে রাগে-ক্ষোভে পড়ে দাদি। তিনি প্রতিশোধের আগুন বুকে নিয়ে ঘুরছিলেন।




হঠাৎ গত দিনগত রাতে দাদি প্রেমিক নাতিকে তার ঘরে মোবাইলফোনে ডেকে নেন। পরে উত্তেজিত অবস্থায় প্রেমিক নাতির লি’ঙ্গে লুকিয়ে রাখা ব্লেড দিয়ে পোস মারেন। এতে গুরুতর রক্তাক্ত জখম হন প্রেমিক নাতি। তার অবস্থা বেগতিক হলে নাক-লজ্জ্বার মাথা খেয়ে চিকিৎসার জন্য আলমডাঙ্গার শেফা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়।এদিকে ক্লিনিকসূত্রে জানা যায়, মানিকের কর্তিত লি’ঙ্গে মোট আটটি সেলাই দিতে হয়েছে। বর্তমানে সে ঐই ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here