গণমাধ্যমে মানবাধিকার ও শ্রমিকদের অধিকার নিয়ে কথা বলায় গ্রে’ফতার বাংলাদেশি রায়হান কবিরকে ১৪ দিনের রি’মান্ডে নেয়া হয়েছে। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরার করা একটি প্রতিবেদনে সাক্ষাৎকার দেওয়ায় প্রবাসী




বাংলাদেশি মো. রায়হান কবিরকে গ্রে’ফতার করেছে মালয়েশিয়ার পুলিশ। শুক্রবার (২৪ জুলাই) রাতে দেশটির

ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের এক টুইট বার্তায় জানানো হয়েছে, সেদিন সন্ধ্যায় তাকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে।




তদ’ন্তের স্বার্থে তাকে রিমা’ন্ডে নেয়া হয় বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো। শনিবার থেকে তার ১৪ দিনের রিমা’ন্ড

কা’র্যকর হয়েছে। দ্রুতই তাকে মালয়েশিয়ায় কালো তালিকাভুক্ত করা হবে বলে জানা গেছে। দেশটির অভিবাসন




বিভাগ সে প্রক্রিয়া চালাচ্ছে। ইতোমধ্যে বাতিল করা হয়েছে তার ওয়ার্ক পারমিট ও ভিসা।গ্রেপ্তারের আগে নিজের

হোয়াটস অ্যাপ থেকে একটি বার্তা পাঠিয়ে রায়হান কবির বাংলাদেশের একটি শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমার অপরাধটা




কী? আমি তো কোনো মিথ্যা বলিনি। প্রবাসীদের ওপর যে বৈ’ষম্য ও নিপী’ড়ন চলেছে, আমি শুধু সেই কথাগুলো

বলেছি। আমি চাই প্রবাসে থাকা কোটি বাংলাদেশি ভালো থাকুক। আমি চাই পুরো বাংলাদেশ আমার পাশে থাকুক।’




উল্লেখ্য,আল জাজিরায় প্রচারিত ‘১০১ ইস্ট’ অনুষ্ঠানে ২৫ মিনিট ৫০ সেকেন্ডের ওই প্রতিবেদন প্রচারিত হয়। এতে করোনাভাইরাস মহামা’রিতে মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের সঙ্গে সরকারের আচরণ নিয়ে কথা বলেছিলেন রায়হান

কবির। সংবাদমাধ্যমটির ইউটিউব চ্যানেলে প্রতিবেদনটি প্রকাশের পর থেকে এর স’মালোচনা শুরু করে মালয়েশিয়া। দেশটির সরকার ওই প্রতিবেদনে তোলা অভি’যোগ সরাসরি অ’স্বীকার করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here