অন্ধ্রপ্রদেশে পোল্ট্রির মুরগি দের খাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করলো অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার। বিগত কয়েকদিনে vvnd ভাইরাস পাওয়ার জন্য কয়েক হাজার পোল্ট্রি মুরগি মারা গেছে। ফলে জলের দরে বিক্রি হয়েছে পোল্ট্রি মুরগির মাংস।




মানুষজন ও কম দামে মুরগি পেয়ে কিনেছে জমিয়ে। কিন্তু এই কাজটি ভীষণ ভাবে বিপজ্জনক বলে জানিয়েছেন

ডাক্তাররা।যদিও সরকারের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ডাক্তাররা সঙ্ঘবদ্ধ হয়ে এই ভাইরাসে আক্রান্ত মুরগিদের নিকেশ করতে




চাইছে এবং রাজ্যের মানুষদের সাবধান করেছেন এই রোগাক্রান্ত মুরগি না খাওয়ার জন্য। কারণ এর ফলে হতে পারে

মারাত্মক পরিণতি। শুধু অন্ধ্রপ্রদেশ নয়, উড়িষ্যাতেও একই সমস্যা দেখা গেছে পোল্ট্রি মুরগির ক্ষেত্রে। উড়িষ্যা সরকার ও চেষ্টা করছে এই প্রতিকূল অবস্থা কাটিয়ে ওঠার।




আরো পড়ূন,বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আ’ক্রান্ত হয়ে সৌদি আরবের মক্কায় আবু বক্কর সিকদার (৫০) নামে

আরও এক প্রবাসী বাংলাদেশির মৃ’ত্যু হয়েছে। এই নিয়ে দেশটির বিভিন্ন প্রদেশে আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ৬৭০ জন




প্রবাসী বাংলাদেশির মৃ’ত্যু হলো গতকাল বুধবার স্থানীয় সময় বেলা ১১টায় মক্কার আল জাহের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন

অবস্থায় আবু বক্কর মৃ’ত্যুবরণ করেন। রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রেস সচিব ফখরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত




করেছেন। নিহত আবু বক্কর সিকদার চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়া উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের আলী
সিকদার পাড়ার বাসিন্দা। তিনি চার সন্তানের জনক।নি’হতের ফুফাত ভাই নুরুল আবছার জানান, প্রায় ১৮ দিন পূর্বে

করোনাভাইরাসে আ’ক্রান্ত হয়ে মক্কার কিং আবদুল আজিজ হাসপাতালে ভর্তি হন আবু বক্কর সিকদার। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মা’রা যান। সৌদি আরবের মক্কায় একটি দোকানে চাকরি করতেন আবু বক্কর। সৌদি সরকারের




নিয়ম অনুযায়ী, নি’হতের লা’শ সেখানেই দাফন করা হবে। এদিকে, আবু বক্কর সিকদারের মৃ’ত্যুর খবর বাড়িতে পৌঁছলে নি’হতের পরিবার ও স্বজনদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে।বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সর্বশেষ

তথ্যমতে, দেশটিতে মোট আ’ক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৫৮ হাজার ১৫৬ জন। এখন পর্যন্ত ২ হাজার ৬০১ জনের মৃ’ত্যু হয়েছে। আর সুস্থ হয়ে ফিরেছেন ২ লাখ ১০ হাজার ৩৯৮ জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here