করো’নাকালে আমাদের ফুসফুস সুস্থ থাকা খুব জরুরি। তবে এখন হাসপাতা’লে যেয়ে ফুসফুস বা কিডনিতে কোনো




সমস্যা আছে কিনা তা পরীক্ষা করাও বেশ ঝামেলার। তাই বেছে নিন ঘরোয়া পদ্ধতি। যা সহ’জেই আপনার দেহের

নানা রোগ স’ম্পর্কে জানতে সহায়তা করবে। ঘরোয়া পদ্ধতিতেই একটি পরীক্ষা করতে পারেন। যা বেশ কার্যকরী ও




সহ’জও। এক সর্বভা’রতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে এই পদ্ধতিটি স’ম্পর্কে জানা গেছে। এই পরীক্ষার জন্য

প্রয়োজন শুধু একটা চামচ আর একটা স্বচ্ছ প্লাস্টিকের প্যাকেট। একটা চামচ দিয়েই পরীক্ষা করে জানতে পারবেন




আপনার কিডনি বা ফুসফুসে সমস্যা রয়েছে কিনা। সঙ্গে জানতে পারবেন অন্যান্য রোগ স’ম্পর্কেও। চলুন তবে জেনে

নেয়া যাক কী’ভাবে এই পরীক্ষাটি করবেন- একটি পরিষ্কার চামচ জিভের মধ্যে রেখে চেপে ধরুন। যাতে আপনার লালা




চামচটিতে লাগে। এবারে ওই চামচ প্যাকে’টে ভরুন। প্যাকেটটি টেবিল ল্যাম্পের আলোর নিচে বা সূর্যের আলোর নিচে ১

মিনিটের জন্য রেখে দিন। ১ মিনিট পরে যদি দেখেন চামচে কোনো দাগ বা গন্ধ নেই, তাহলে বুঝবেন আপনি ভেতর




থেকে সুস্থ। যদি দুর্গন্ধ বের হয়, তাহলে বুঝবেন লিভা’র বা ফুসফুসের সমস্যা আছে। মিষ্টি গন্ধ বের হলে বুঝবেন

ডায়াবেটিস হয়েছে। আর ঝাঁঝালো গন্ধ বের হলে বুঝবেন কিডনির সমস্যা। চামচে হালকা হলুদ এবং সাদা রং দেখা




গেলে ধরে নিতে হবে, থাইরয়েডের সমস্যা হয়েছে। হালকা বেগনি রংয়ের দাগ থাকলে বুঝবেন, বুকে সর্দি বসেছে বা

হাই-কোলেস্টেরল সমস্যা আছে। কমলা রং দেখা দিলে বোঝায় কিডনিক সমস্যা। চামচের এই পরীক্ষার পরে উপরে উল্লিখিত কোনো গন্ধ বা রং দেখতে পেলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরাম’র্শ নিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here