মি’ন্টো রোডের গোয়ে’ন্দা দফত’রে রিমান্ডে থাকা ডা. সাবরিনা এবং তার স্বামী আরিফ চৌধুরীর ঝ’গড়া’ঝাঁটিতে বিরক্ত গোয়েন্দা ক’র্মকর্তারা। যখনই সাবরি’নার সামনে আরিফকে নিয়ে আসা হচ্ছে, তখনই একজন আরে’কজনকে




দোষা’রোপ কর’ছিলেন। তুমি থেকে একপ’র্যায়ে তু’ই তাকা’রিতে চলে যা’চ্ছিল তাদের এই ঝ’গড়া। সাব’রিনা যখন

বলছি’লেন, তুই আ’মার জীবন, ক্যা’রিয়া’র, চা’করি-সব শেষ করে দি’ছিস। তখন আ’রিফ বলেন, তোর বুদ্ধি’তেই




ক’রোনাভা’ইরাসের নমুনা পরী’ক্ষার কাজ নিয়ে’ছিলাম। জে’কেজির চেয়া’রম্যান হয়ে তুই’তো ব্যব’সার টা’কা আর

বে’তনও নিয়ে’ছিস। গোয়ে’ন্দা পুলি’শের একটি সূত্র এসব তথ্য দি’য়ে বলেছে, যখ’নই তাদের কো’নো তথ্য




যা’চাইয়ে মু’খোমু’খি করা হয়, তখনই দুজ’নে ঝগ’ড়া’ঝাঁটি শুরু করে দেন। তাদে’র বারবার থামাতে হয়েছে তদ’ন্ত

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নমুনা পরী’ক্ষার জালি’য়াতির কথা আরিফ স্বী’কার করেছে। সাব’নাও জা’লিয়া’তির সঙ্গে যুক্ত




থা”কার বিষ’য়টি কবুল করেছেন। আজ শুক্র’বার সাব’রিনাকে আদা’লতে হাজির করে প্রয়োজনে ফের রি’মা’ন্ডের

আবে’দনও করা হবে। সূত্র জানায়, জিজ্ঞা’সাবাদে সা’বরিনা ব’লেছে, জেকেজি ও ওভাল গ্রুপের অনেকেই এই




দুষ্কর্মের স’ঙ্গে যু’ক্ত। তবে তিনি আরিফ চৌধুরী’কেই দোষা’রোপ করে’ছেন বারবার। তার দাবি এসব কারণে তিনি তাকে ডি’ভোর্সও দিয়েছে’ন। তবে আরি’ফ বলেছেন, সাব’রিনার কারণে এই অ’পকর্মে জড়ি’য়েছেন তিনি সাবরিনা আরি’ফ

চৌধুরী ও তার স্বা’মী আরি’ফুল হক চৌধু’রীকে মুখো’মুখি জি’জ্ঞা’সাবাদে নমুনা প’রীক্ষা’র নামে জালজা’লিয়া’তিতে জড়ি’ত আরও ক’য়েকজ’নের নাম পেয়েছে ঢাকা মহা’নগর গো’য়ে’ন্দা পুলিশ (ডিবি)।তাদে’র অ’পক’র্মে সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য




ম’ন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধি’দফতর ও স্বাচি’পের নে’তাসহ এদের সংখ্যা পাঁ’চ থেকে সাত’জন। তারা জা’ন’তেন, সাব’রিনা এবং আরি’ফের ও’ভাল গ্রুপ একটি নাম স’র্বস্ব প্রতি’ষ্ঠান। এরপ’রও স্বা’স্থ্যের সব ই’ভেন্ট ম্যা’নেজমে’ন্ট কাজ

বা’গিয়ে নিতে সহযো’গিতা কর’তেন। এখন প্রশ্ন উঠে’ছে, এসব স’হযোগি’তায় ওই’সব ক’র্মক’র্তাদের কী ধরনের স্বা’র্থ জ’ড়িত ছিল, তা নি’য়েও তদ’ন্তে নে’মেছে ডিবি পু’লিশ। গো’য়েন্দা পুলিশে’র এক কর্মক’র্তা জানান, গত ১৪ ও




১৫ জুলাই ওভা’ল গ্রু’পের গুলশান অফি’সে তল্লা’শি চা’লিয়ে জা’তীয় হৃদরোগ ইনস্টি’টিউটে’র চিকিৎসক ডা. সাবরি’না শারমিন হুসা’ইন ওর’ফে সাব’রিনা আরিফ চৌধুরীর জেকে’জি হেলথ কেয়া’রের চেয়ারম্যান হিসেবে মাসে

মা’সে বেতন নি’ন। বেত’নের স্লি’পও পাওয়া গেছে। এরক’ম তিন’টি বে’তনের স্লিপ তাদের হাতে রয়েছে। জে’কেজি থেকে সাবরিনা চেয়া’রম্যান হিসেবে প্রতি মা’সে ৩০ হাজা’র টা’কা করে নিতেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here